আমার স্বামী শারীরিকভাবে অক্ষম সে ষড়যন্ত্রের শিকার,

আমার স্বামী শারীরিকভাবে অক্ষম সে ষড়যন্ত্রের শিকার,

বাগেরহাট প্রতিনিধি: যে মামলায় আমার সাবেক স্বামীকে সাজা দেওয়া হয়েছে, সে এই ধরনের কাজ করতে পারে না। সে ষড়যন্ত্রের শিকার। আমি ন্যায় বিচার চাই’।

সাত কর্মদিবসেই সোমবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে ধর্ষণ মামলার আসামি আব্দুল মান্নান সরদারকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ঘোষণার পর তার সাবেক স্ত্রী আমেনা বেগম এ দাবি করেন।

স্বামীকে নির্দোষ দাবি করে আমেনা বেগম বলেন, ‘আমার স্বামী শারীরিকভাবে অক্ষম। তাই আমি তাকে বছর খানেক আগে ডিভোর্স দিছি। স্থানীয় ইউপি সদস্য পূর্ব শত্রুতার জেরে ধর্ষণ মামলা দিছে’।

উল্লেখ, বাগেরহাটের মোংলায় সাত বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা দায়েরের ১৫ দিনের মধ্যে এবং আদালতে বিচার প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার সাত কার্যদিবসের মধ্যে ধর্ষক আব্দুল মান্নান সরদারকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।
দুপুরে যুগান্তকারী এ রায় দেন বাগেরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মো. নূরে আলম। এর আগে এতো দ্রুত কোনো ধর্ষণ মামলার রায় হয়নি।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী রাষ্ট্রপক্ষের সহকারী সরকারি কৌঁসুলি রনজিৎ কুমার মণ্ডল ও আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন লিয়াকত হোসেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *