কুমারখালীতে পূর্ব শত্রুতার জেরে তিন মাসের অন্তঃসত্তা মেয়েকে নির্যাতন অভিযোগ

কুমারখালীতে পূর্ব শত্রুতার জেরে তিন মাসের অন্তঃসত্তা মেয়েকে নির্যাতন অভিযোগ

শামিম হাসান খানঃ কুমারখালী(কুষ্টিয়া) ২৫শে ফেব্রুয়ারী ২০২১ : কুষ্টিয়ার কুমারখালীর বাগুলাট ইউনিয়নের মধুপুর গ্রামে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে মা ও ৩ মাসের অন্ত:সত্তা মেয়েকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় কুমারখালী স্বাস্থ কমপ্লেক্সে ভর্তি অন্ত:সত্তা। গত ২৪ ফেব্রুয়ারী বুধবার দুপুর ১টার সময় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে বাগুলাট ইউনিয়নের মধুপুর গ্রামে মৃত খন্দকার মকবুল হোসেনের স্ত্রী আয়শা, বড় মেয়ে রুবিনা এবং ৩ মাসের অন্তঃসত্তা ছোট মেয়ে শান্তা ইসলামের উপর লাঠি এবং লোহার রড দিয়ে হামলা চালায় প্রতিবেশী মৃত শমসের আলীর ছেলে সবুজ একই গ্রামের মৃত মতিনের ছেলে রাজা এবং সবুজের মা রাবেয়া ও তার স্ত্রী রজিনা। মারধরের এক পর্যায়ে অন্তঃসত্তা শান্তা মাটিতে পড়লে গেলে অভিযুক্ত সবুজ অন্তঃসত্তার পেটে লাথি মারতে থাকে। ঘটনার এক পর্যায়ে অন্তঃসত্তার রক্তক্ষরন শুরু হলে সবুজ গং ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে অন্তঃসত্তার পরিবারের লোকজন শান্তাকে উদ্ধার করে মধুপুর বাজারে প্রাথমিক চিকিৎসার পর কুমারখালী স্বাস্থ কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। শান্তার স্বামী ফরিদুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, প্রশাসনের কাছে সবুজ, রাজা এবং সবুজের মা ও স্ত্রীর কঠিন থেকে কঠিনতর শাস্তি দাবি জানাচ্ছি। এলাকাবাসী জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবৎ জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে দুই পরিবারের মাঝে। এই বিরোধের কারনে সবুজ ও তার পরিবারের লোক এর আগেও একাধিক বার হামলা চালায় মৃত খন্দকার মকবুল হোসেনের পরিবারের উপর। ৩-৪ মাস আগেও এলাকার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষার্থে সবুজ ও তার পরিবারকে কুমারখালীর চৌরঙ্গী ক্যাম্পের পুলিশ সতর্ক করে যায় এবং বিষয়টি মীমাংসা করে দেয়। কিন্তু পুলিশের নির্দেশ অমান্য কওে আবার গতকাল তার পরিবারকে অমানবিকভাবে নির্যাতন করে বলে জানায় এলাকাবাসী।

শেয়ার করে অন্যদের দেখার সুযোগ করে দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *